৫৪ হাজার শিক্ষক নিয়োগে স্থগিতাদেশ বাড়ল

0
84

নিজস্ব প্রতিদেক: এমপিওভুক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নিবন্ধনধারী ৫৪ হাজার শিক্ষক নিয়োগে জারি করা বিজ্ঞপ্তির ওপর স্থগিতাদেশের মেয়াদ রোববার (২৩ মে) পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে।

একইদিনে, বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ (এনটিআরসিএ) কর্তৃক নিবন্ধনধারীদের মধ্যে রিটকারীদের এমপিওভুক্ত বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে নিয়োগের ব্যাপারে আদেশ দেওয়ার পরবর্তী তারিখ ধার্য করেছেন বিচারপতি মামনুন রহমান ও বিচারপতি খোন্দকার দিলীরুজ্জামানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ।

বৃহস্পতিবার (২০ মে) এই আদেশ দেওয়া হয়।

এদিকে, ওই রিট আবেদন শুনানির জন্য বৃহস্পতিবার নির্ধারিত ছিল। তবে, আদালতের কার্যতালিকায় মামলার সংখ্যা বেশি থাকায় শুনানি পিছিয়ে রোববার (২৩ মে) নতুন দিন নির্ধারণ করা হয়েছে।

আদালতে এনরিআরসিএ’র পক্ষে শুনানি করেন অ্যাটর্নি জেনারেল এ এম আমিন উদ্দিন। রিটের পক্ষে শুনানি করেন খুরশিদ আলম খান, মোহাম্মদ ছিদ্দিক উল্লাহ মিয়া ও মহিউদ্দিন হানিফ।

এর আগে, ৭ মার্চ এনটিআরসিএ’কে ১ থেকে ১২তম নিবন্ধন পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের এমপিওভুক্ত বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে নিয়োগের সুপারিশ করতে নির্দেশ দেন হাইকোর্ট। ১৫ দিনের মধ্যে এনটিআরসিএ চেয়ারম্যানকে এ নির্দেশ বাস্তবায়ন করতে বলা হয়। একই সঙ্গে নিবন্ধনধারীদের নিয়োগ সংক্রান্ত হাইকোর্টের রায় বাস্তবায়ন করতে বলেন আদালত।

আদালতের ওই আদেশ বাস্তবায়ন না করায় পুনরায় এনটিআরসিএ চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার আবেদন করা হয়।

এনটিআরসিএ’র চেয়ার‌ম্যানের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননা মামলার শুনানি নিয়ে বিচারপতি মামনুন রহমান ও বিচারপতি খোন্দকার দিলীরুজ্জামানের হাইকোর্ট বেঞ্চ এই আদেশ দেন। তারই ধারাবাহিকতায় বৃহস্পতিবার শুনানি হয়।

প্রসঙ্গত, ১৫ ডিসেম্বর এনটিআরসিএ কর্তৃক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শিক্ষক নিয়োগে বিজ্ঞপ্তির ওপর প্রথম নিষেধাজ্ঞা দেন হাইকোর্ট। আদালত অবমাননার বিষয়টি নিষ্পত্তি না করে শিক্ষক নিয়োগে এনটিআরসিএ কোনো বিজ্ঞপ্তি দিতে পারবে না বলেও আদেশে উল্লেখ করা হয়।

এ ব্যাপারে আইনজীবী মহিউদ্দিন মো. হানিফ জানান, ২০১৭ সালের ১৪ ডিসেম্বর হাইকোর্ট একটি রায় দিয়েছেন। ওই রায়ে কয়েক দফা নির্দেশনা ছিল। তার মধ্যে একটি ছিল সম্মিলিত মেধা তালিকা অনুযায়ী রিট আবেদনকারীদের নিয়োগের জন্য সুপারিশ করবে এনটিআরসিএ।

কিন্তু, অনেক সময় পার হলেও রায় বাস্তবায়ন না করায় রিট আবেদনকারীরা আদালত অবমাননার আবেদন করেন। এ আবেদনের শুনানি নিয়ে পরীক্ষায় উত্তীর্ণ সনদধারীদের মধ্যে রিটকারী প্রায় দেড় হাজারজনকে এক সপ্তাহের মধ্যে নিয়োগের জন্য সুপারিশ করতে নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

একইসঙ্গে, ৩০ মার্চ প্রকাশিত গণবিজ্ঞপ্তি সাত দিনের জন্য স্থগিত করা হয়েছে। আদালত পরবর্তী আদেশের জন্য ১৮ মে দিন ধার্য করেন। ওইদিন শুনানি শেষে সেটি আরও শুনানি ও অগ্রগতি প্রতিবেদন জমার দেওয়ার জন্যে ২০ মে দিন ঠিক করেন।

শুনানি শেষে, স্থগিতাদেশ আরও তিন দিন বাড়িয়ে ২৩ মে পরবর্তী শুনানির তারিখ ধার্য করা হয়।

ওএস/আরপি

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here