লকডাউনে ওজন বেড়ে যাচ্ছে, কি করণীয়?

0
83

নিউজ ডেস্ক: লকডাউনের কারণে অনেকেরই দিন কাটছে ঘরে বসে। কারও কারও রয়েছে ঘরে বসে অফিসের কাজ করার সুযোগ। এতে ভাইরাস থেকে অনেকটাই সুরক্ষিত থাকা যাচ্ছে। এদিকে সারাদিন শুয়ে বসে থাকা এবং শারীরিক কার্যকলাপ কমে যাওয়ার কারণে বেড়ে যাচ্ছে ওজন। আর ওজন বেড়ে যাওয়া মানেই নানা অসুখের ঝুঁকি। তাই ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখার চেষ্টা করতে হবে। লকডাউনে বাড়িতে থেকেও কীভাবে ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখবেন, চলুন জেনে নেওয়া যাক-

আতঙ্কিত হবেন না: করোনাভাইরাসের কারণে আতঙ্কিত হয়ে পড়ছেন অনেকে। সংক্রমণের ভয়, আর্থিক অনিশ্চয়তাসহ আরও অনেক কারণ রয়েছে এর পেছনে। ভবিষ্যৎ নিয়ে দুশ্চিন্তা করতে গিয়ে বর্তমানকে নষ্ট করার অর্থ নেই। তাই মহামারি নিয়ে অতিরিক্ত দুশ্চিন্তা বন্ধ করুন। বাড়ির এবং অফিসের প্রয়োজনীয় কাজগুলো সময়মতো শেষ করার অভ্যাস করুন। নিজেকে কোনো না কোনো কাজে ব্যস্ত রাখুন। এতে শরীর ও মন ভালো থাকবে। টানা বসে থাকবেন না। কিছুক্ষণ পরপর হাঁটাহাঁটির অভ্যাস করুন।

স্বাস্থ্যকর খাবার খান: সুস্থ থাকা এবং ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখার জন্য স্বাস্থ্যকর খাবার খাওয়া জরুরি। হাতের কাছে যা পাওয়া যাচ্ছে তাই খেয়ে নেবেন না। বরং কিছুটা সময় বের করে স্বাস্থ্যকর উপায়ে রান্না করে নিন। বাইরে থেকে খাবার অর্ডার করে খাওয়াও বন্ধ রাখুন। প্রতিদিনের খাবার সবজি ও ফল রাখুন পর্যাপ্ত। রান্না করার সময় না পেলে সালাদ তৈরি করে খেতে পারেন। এটিও স্বাস্থ্যকর। স্বাস্থ্যকর খাবার খেলে তা আপনার ওজন বাড়তে দেবে না।

শরীরচর্চা করুন: বাড়িতে আছেন বলেই সারাদিন শুয়ে-বসে থাকবেন না। যতটুকু সম্ভব হাঁটাহাঁটি করুন। জিমে যাওয়া কিংবা সাঁতার কাটা সম্ভব নয় বলে অলসতা করবেন না। ইউটিউব দেখে প্রয়োজনীয় শরীরচর্চা শিখে নিতে পারেন। এতে শরীরে বাড়তি মেদ জমবে না। শরীর ঝরঝরে থাকবে।

পানি পান করুন: পরিশ্রম কম করছেন বলে পানি তৃষ্ণাও কম লাগতে পারে। তবে পানি পানের বিষয়টিতে অবহেলা করা যাবে না। পানি কম পান করলে শরীরে পানিশূন্যতাসহ আরও অনেক সমস্যা দেখা দিতে পারে। প্রয়োজনীয় পানি পান করুন। এতে ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখা সহজ হবে।

পর্যাপ্ত ঘুম: ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখার জন্য পর্যাপ্ত ঘুম জরুরি। বাড়িতে বসে অফিসের কাজ করার কারণে অনেক সময় কাজের চাপ বেশি হতে পারে। তবে কাজের চাপ যতই থাকুক, ঘুমে অবহেলা করবেন না। রাত জেগে কাজ করা, মুভি দেখা, বই পড়া ইত্যাদি অভ্যাস বাদ দিন। পর্যাপ্ত ঘুম আপনাকে সুস্থ থাকতে সাহায্য করবে। সেইসঙ্গে নিয়ন্ত্রণে রাখবে ওজনও।

ওএস/এমআর

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here