রাজশাহীতে ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৩ জনের মৃত্যু

0
83

বার্তা প্রতিবেদক: রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে মৃত্যুর সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়েছে। গত কয়েকদিন ধরে গড়ে মৃত্যু ১০’র মধ্যে থাকলেও গত ২৪ ঘন্টায় ১৩ জন মারা গেছেন। এদের মধ্যে ৪ জন পুরুষ ও ৯ জন নারী। করোনা পজিটিভ ছিলেন ৬ জন, বাকিরা উপসর্গ নিয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান বলে জানিয়েছেন হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী।

তিনি বলেন, আজ সোমবার সকাল ৬টা পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টার বিভিন্ন সময় তারা মারা যান। মৃতদের মধ্যে রাজশাহীর ৩, চাঁপাইনবাবগঞ্জে ৬, নাটোরের ৩ এবং নওগাঁর ১ জন। এদের মধ্যে দু’জন মারা যান আইসিইউতে। মৃতদের মধ্যে ৬ জনের বয়স ৬১ বছরের উপরে। ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে ৩ জন এবং ৩১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে ৪ জন।

এ নিয়ে চলতি মাসের গত ২১ দিনে এ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে মারা গেলেন ২১৬ জন। সবচেয়ে বেশি মারা যান গত ৪ জুন ১৬ জন এবং সবচেয়ে কম ১২ জুন ৪ জন।

শামীম ইয়াজদানী জানান, গত ২৪ ঘন্টায় হাসপাতালে নতুন করে ভর্তি হয়েছেন ৬২ জন। এর মধ্যে রাজশাহীর ৪৫ জন, চাঁপাইনবাবগঞ্জের ৯, নাটোরের ৩, নওগাঁর ৩, পাবনার ১ জন ও জয়পুরহাটের ১ জন। একই সময়ে সুস্থ্য হয়ে হাসপাতাল ছেড়েছেন ৩৪ জন।

রামেকের করোনা ইউনিটে সোমবার সকাল পর্যন্ত ৩০৯ বেডের বিপরীতে মোট ভর্তি রোগী আছেন ৪০২ জন। এর মধ্যে রাজশাহীর ২৬৪ জন, চাঁপাইনবাবগঞ্জের ৭০ জন, নাটোরের ৩০ জন, নওগাঁর ২৯ জন, পাবনার ৫ জন, কুষ্টিয়ার ২ জন এবং চুয়াডাঙ্গার ২ জন রয়েছেন। এছাড়া আইউসিইউতে ভর্তি আছেন ১৯ জন।

সীমান্তবর্তী জেলা রাজশাহীতে গত ১১ জুন থেকে চলছে ‘বিশেষ লকডাউন’। এরপরও কমছে না মৃত্যুর সংখ্যা। সেই সঙ্গে রোগীর সংখ্যাও বাড়ছে। সোমবার সকাল পর্যন্ত করোনা ইউনিটে ধারণ ক্ষমতার অতিরিক্ত ৯৩ জন রোগি চিকিৎসাধীন আছেন। তাদেরকে মেঝে ও বারান্দায় বেড দিয়ে রাখা হয়েছে।

হাসপাতাল পরিচালক বলেন, করোনা আক্রান্ত বা উপসর্গ নিয়ে যেসব রোগী আসছে তাদের সবাইকে ভর্তি করা হচ্ছে না। শুধুমাত্র যাদের অক্সিজেন প্রয়োজন হচ্ছে তাদের ভর্তি করা হচ্ছে। বাকিদের চিকিৎসাপত্র দিয়ে বাড়ি পাঠানো হচ্ছে। তারা বাড়ি থেকেই চিকিৎসা নিচ্ছেন। এরপরও হাসপাতালে রোগীদের জায়গা দেয়া সম্ভব হচ্ছে না।

তিনি আরও বলেন, পরিস্থতি সামাল দিতে হাসপাতালের একটি সাধারণ ওয়ার্ডকে করোনা ওয়ার্ডে রূপান্তর করার কাজ চলছে। ১৭ নম্বর ওয়ার্ডে এখন অক্সিজেন সরবরাহ লাইনের কাজ চলছে। আজ (সোমবার) লাইন বসানোর কাজ শেষ হলে সেখানে রোগী রাখতে পারবো।

এদিকে, রাজশাহীতে একদিনের ব্যবধানে ফের সামান্য কমেছে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ। রোববার দুইটি ল্যাবে রাজশাহীর ৪৭৭ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ২০৬ জনের শরীরে করোনাভাইরাস পাওয়া গেছে। পরীক্ষার ফলাফলে আগের দিনের চেয়ে ৩ দশমিক ৮ শতাংশ কমে করোনা শনাক্তের হার দাঁড়িয়েছে ৪৩ দশমিক ১৯ শতাংশ। যা আগের দিন শনিবার ৪৬ দশমিক ৯৯ শতাংশ। এর আগে গত শুক্রবার ৩০ দশমিক ০৬, বৃহস্পতিবার ৪৩ দশমিক ৮৭ এবং বুধবার ছিল ৪১ দশমিক ৫০ শতাংশ।

রাজশাহী ছাড়াও চাঁপাইনবাবগঞ্জে ৭৮ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৩৮ জনের শরীরে ভাইরাস পাওয়া যায়। যা শনাক্তের হার ৪৮ দশমিক ৭১ শতাংশ। এছাড়াও নাটোরের একজন পজিটিভ এবং বিদেশগামী দু’জনের নমুনা পরীক্ষায় নেগেটিভ ফল পাওয়া গেছে।

ওএস/আরপি

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here