বাজেট অধিবেশন চলবে ১২ কার্যদিবস

0
74

বার্তা প্রতিবেদক: ২০২১-২২ অর্থ বছরের বাজেট অধিবেশন শুরু হচ্ছে আগামী ২ জুন। চলবে ১২ কার্যদিবস।সংসদ সচিবালয় থেকে সংসদ অধিবেশনের একটি খসড়া বাজেট ম্যাপও (কার্যসূচি) তৈরি করা হয়েছে। অবশ্য পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে এতে পরিবর্তন আসতে পারে। সোমবার (২৪ মে) সংসদ সচিবালয়ের সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

বাজেট ম্যাপের তথ্যানুযায়ী, ২ জুন বিকেল ৫টায় অধিবেশন শুরু হবে। ওই দিন শোক প্রস্তাব ও আলোচনা গ্রহণ করবেন স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী। এরপর সংসদ মুলতবি হবে। পরের দিন ৩ জুন বিকাল তিনটায় বাজেট উত্থাপন ও অর্থ বিল উত্থাপন করা হবে। এরপর থেকে প্রতিদিনের কার্যদিবস শুরু হবে সকাল ১১টায়।

এতে আরো বলা হয়েছে, ৬ জুন কমিটির বিল সম্পর্কিত রিপোর্ট উত্থাপন, চারটি বিল উত্থাপন এবং সম্পূরক বাজেটের ওপর আলোচনা হবে। ৭ জুন সম্পূরক বাজেটের ওপরে আলোচনা ও পাস এবং নির্দিষ্টকরণ সম্পূরক বিল পাস করা হবে।

এরপর সপ্তাহ খানেক বিরতি দিয়ে ১৪ জুন আবারও চলবে বাজেট অধিবেশন। পরপর চার দিন অর্থাৎ ১৪, ১৫, ১৬ ও ১৭ জুন ২০২১-২২ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটের ওপরে সাধারণ আলোচনা অনুষ্ঠিত হবে। এরপর ১১ দিন বিরতি দিয়ে ২৮ জুন অধিবেশন আবারও বসবে এবং ওই দিনও বাজেটের ওপর সাধারণ আলোচনা অনুষ্ঠিত হবে। পর দিন ২৯ জুনও মূল বাজেটের ওপরে সমাপনী আলোচনা হবে। সেদিন পাস হবে অর্থবিল। ৩০ জুন বুধবার মন্ত্রণালয় ও বিভাগভিত্তিক মজুরি দাবি নিষ্পত্তিসহ নির্দিষ্টকরণ বিল পাস হবে। পরদিন ১ জুলাই বৃহস্পতিবার শেষ হবে বাজেট অধিবেশন। ওইদিন প্রশ্ন-উত্তর পর্ব, বেসরকারি বিল উত্থাপন, সরকারি বিল পাস এবং অধিবেশনের সমাপ্তি হবে। এদিন প্র্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বক্তব্য রাখবেন। বিরোধী দলের শীর্ষ নেতারাও বক্তব্য রাখবেন।

সচিবালয়ের বাজেট ম্যাপ থেকে জানা যায়, বাজেট পেশের আগে ২ জুন দুপুর ১২টায় সংসদে মন্ত্রিসভার বৈঠক হবে। মন্ত্রিসভার বৈঠকের পর অর্থ বিলে সই করবেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। এ কারণে রাষ্ট্রপতি সেদিন সংসদ ভবনে তার কার্যালয়ে অবস্থান করবেন। এরপর ৩টায় অধিবেশন শুরু হবে।

জানা গেছে, বাজেট অধিবেশন সংশ্লিষ্ট সব এমপি ও মন্ত্রী ছাড়াও কর্মকর্তা-কর্মচারীদের করোনা টেস্ট করা হবে। করোনা পরীক্ষায় কেবল নেগেটিভ হলেই তারা অধিবেশনে যোগ দিতে পারবেন। ৭০-৮০ জন এমপির উপস্থিতিতে ও কম সংখ্যক সচিবালয়ের কর্মীদের নিয়ে অধিবেশনের কাজ পরিচালনা করা হবে। সংসদ চলাকালীন দর্শনার্থীদের প্রবেশ নিষিদ্ধ থাকবে।

এবারের বাজেট অধিবেশনে সীমিত পরিসরে সাংবাদিকদের প্রবেশের সুযোগ রাখা হয়েছে। সংসদ সচিবালয়ের তালিকা অনুযায়ী, বিভিন্ন গণমাধ্যমের অর্ধ শতকের মতো সাংবাদিক সংসদ অধিবেশন কাভার করতে পারবেন। তবে তাদের কেউ গ্যালারিতে যেতে পারবেন না। গণমাধ্যমকর্মীদের জন্য সংসদ সচিবালয়ের নির্ধারিত কক্ষে বসে তাদেরকে সংবাদ সংগ্রহ করতে হবে।

গণমাধ্যমকর্মীরাও করোনা পরীক্ষা করে কেবল নেগেটিভ হলেই সংবাদ সংগ্রহ করতে পারবেন। অন্যদের মতো তাদেরও তিন দিন পরপর সংসদ সচিবালয়ের মেডিক্যাল সেন্টারের ব্যবস্থাপনায় করোনার নমুনা সংগ্রহ ও পরীক্ষা করা হবে বলে সচিবালয়ের গণসংযোগ শাখা সূত্রে জানা গেছে।

ওএস/আরপি

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here