প্যানিক সেলে নিম্নমুখী ডিএসই ইনডেক্স

0
73

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক: ফ্লোর প্রাইজ উঠে যাচ্ছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এমন গুজবের কারণে পুঁজিবাজারে হঠাৎ দর পতন দেখা দিয়েছে। কিন্তু বিএসইসি’র পক্ষ থেকে এ গুজব উড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। তাই বিনিয়োগকারীদের প্যানিক সেল না দেওয়ার পরামর্শ সংশ্লিষ্টদের।

তবে, সপ্তাহের তৃতীয় কার্যদিবসে দিনের শুরু থেকে প্যানিক সেল অব্যাহত ছিল পুঁজিবাজারে। এরই ধারাবাহিকতায় দুপুর সোয়া ১১ টায় ডিএসই’র সিংহভাগ কোম্পানির দর পতনে মূল্যসূচক নিম্নমুখী দেখা গেছে।

অপরদিকে, চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জেও (সিএসই) বিক্রয় চাপ অব্যাহত রয়েছে। সিএসইতেও সিংহভাগ কোম্পানির দর পতনে সূচক নিম্নমুখী রয়েছে।

আজ (১৮ মে) বেলা সোয়া ১১টা পর্যন্ত ডিএসই ও সিএসই’র লেনদেন চিত্রে এ তথ্য দেখা গেছে।

বাজার বিশ্লেষণে দেখা যায়, বেলা সোয়া ১১টা পর্যন্ত ডিএসইতে লেনদেন হওয়া ৩৫৯টি কোম্পানি ও ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ৮৯টির, কমেছে ২২৩টির ও অপরিবর্তিত ছিল ৪৭টি প্রতিষ্ঠানের দর। অর্থাৎ এসময় ডিএসই’র ৬২.১১ শতাংশ কোম্পানি ও ফান্ডের দর কমেছে।

এদিকে, বিনিয়োগকারীদের বিক্রয় চাপে বেলা সোয়া ১১টা পর্যন্ত ডিএসইতে ৬৯৯ কোটি ২৮ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে।

প্রথম সোয়া এক ঘন্টার লেনদেন শেষে ডিএসই’র সার্বিক মূল্যসূচক ২৯.০১ পয়েন্ট কমেছে। এসময় শরীয়াহ্ সূচক ডিএসইএস ও ডিএস-৩০ সূচক যথাক্রমে ৫.৬৯ পয়েন্ট ও ৯.৫২ পয়েন্ট কমেছে।

এসময়, ডিএসইতে লেনদেনের তালিকায় শীর্ষে উঠে এসেছে বেক্সিমকো। প্রথম সোয়া এক ঘন্টায় কোম্পানিটির ৫৭ কোটি ৮১ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। লেনদেনের তালিকায় থাকা অন্যান্য কোম্পানিগুলো হলো- প্রাইম ব্যাংক, ক্রিস্টাল ইন্স্যুরেন্স, ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্রাকো, ন্যাশনাল ফিড, ম্যাকসন স্পিনিং, সিটি জেনারেল ইন্স্যুরেন্স, সাইফ পাওয়ার, জেনেক্স ইনফোসিস ও রবি আজিয়াটা লিমিটেড।

এদিকে, চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে মঙ্গলবার প্রথম সোয়া এক ঘন্টায় ১৫ কোটি ৫ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এসময় সিএসইতে ৫৯টি কোম্পানির দর বেড়েছে, দর কমেছে ১৩১টির ও অপরিবর্তিত ছিল ২১টি প্রতিষ্ঠানের দর। এসময় সিএসসিএক্স কমেছে ৩০.২৩ পয়েন্ট।

ওএস/আরপি

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here